শুক্রবার

মনিহারি বা সাপ্লাইজ কি - বিস্তারিত

মনিহারি হিসাব কাকে বলে - সাপ্লাইজ বলতে কি বোঝায়


এখানে যা থাকছে---

  • মনিহারি কি
  • সাপ্লাইজ কি
  • ষ্টেশনারী কি
  • মনিহারি হিসাবের জাবেদা
  • ছাপা ও মনিহারি
  • মনিহারি হিসাবের বৈশিষ্ট্য

মনিহারি কি, সাপ্লাইজ কি, ষ্টেশনারী কি, মনিহারি হিসাবের জাবেদা, ছাপা ও মনিহারি, মনিহারি হিসাবের বৈশিষ্ট্য
মনিহারি বা সাপ্লাইজ


মনিহারি সম্পর্কে জানার আগে যা জানা প্রয়োজনঃ

সাধারণত খাতা, কলম, পেন্সিল, চক, ডাস্টার, স্কেল, কম্পাস, দড়ি, সুজ, সুতা ইত্যাদি ছোট খাট প্রয়োজনীয় দ্রব্যকে মনিহারি দ্রব্য বলে। এ সকল ছোট খাটো দ্রব্য বা জিনিস যে সকল দোকানে বিক্রি করা হয় সে সকল দোকান কে মনিহারী দোকান বলে। সুতরাং মনিহারী দোকান থেকে ক্রয় কৃত দ্রব্য কে মনিহারি বা মনিহারী দ্রব্য বলে।



মনিহারি হিসাব কি বা কাকে বলেঃ

প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে প্রায় প্রতিদিন খাতা, কলম, পেন্সিলের মতো ছোট খাটো জিনিস ক্রয় বা কেনার প্রয়োজন হয়ে পড়ে। এসকল দ্রব্য বা জিনিস হঠাৎ হঠাৎ করে কেনার প্রয়োজন হয় এবং খাতা, কলম, পেন্সিলের মতো প্রতিদিন ব্যবহারযোগ্য এগুলোর প্রকার অনেক। ফলে প্রতিটি দ্রব্যের নামে হিসাব করলে প্রচুর সময় অপচয়ের সাথে সাথে হিসাবের তালিকা অনেক বড় হওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। যেমন, খাতা ক্রয়ের জন্য যদি খাতা হিসাব করা হয়, কলম কেনার জন্য যদি কলম হিসাব করা হয় বা বিভিন্ন ছোট খাটো জিনিস ক্রয়ের জন্য যদি সেই নামে হিসাব করা হয় তবে হিসাবের খাতায় হিসাবের তালিকা লম্বা হয়ে পাড়ে, যা খুবি সমস্যার। এ সকল সমস্যা সমাধানের জন্য, এসকল ছোট খাটো জিনিসের প্রতিটি আলাদা আলাদা হিসাব না করে এগুলোকে যেহেতু মনিহারি দ্রব্য বলে এবং মনিহারি দোকান থেকে ক্রয় করা হয়, তাই এসকল লেনদেন সংঘটিত হলে এসকল হিসাবের ক্ষেত্রে প্রতিটির আলাদা আলাদা নাম না লিখে খাতা, কলম, পেন্সিলের মতো ছোট খাটো জিনিস যাই ক্রয় করা হোক না কেন যদি একসাথে মনিহারি হিসাব লেখা হয়, তবে হিসাব লিপিবদ্ধ সহজ হওয়ার পাশাপাশি হিসাবের তালিকা ছোট হয় এবং সময়ের অপচয় রোধ হয়। সুতারং প্রতিষ্ঠানের নিত্য বা প্রতিদিন ব্যবহারযোগ্য মনিহারি দোকান থেকে যে সকল মনিহারি দ্রব্য ক্রয় করা হয় এবং এ সকল দ্রব্যের বিপরীতে যে হিসাব করা হয় তাকে মনিহারি হিসাব বলে।



মনিহারি কোন ধরণের হিসাবঃ

প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে মনিহারি দ্রব্য ক্রয় করা হয়। প্রতিষ্ঠানের ক্রয় কৃত দ্রব্যাদির ফলে প্রতিষ্ঠানের ব্যয় বেড়ে যায়, ফলে মনিহারি হিসাব এক ধরণের ব্যয় হিসাব। অপর দিকে একটি নির্দিষ্ট বছরে স্বল্প মেয়াদে এসকল ব্যয় করা হয় যা প্রতিষ্ঠানের আয় ব্যয়ের সাথে সরাসরি জড়িত ফলে মনিহারি হিসাব কে প্রতিষ্ঠানের মুনাফা জাতীয় ব্যয় বলে। অপর দিকে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে এসকল ব্যয় সংঘটিত হয় বলে মনিহারি হিসাব কে পরিচালন ব্যয়ের অন্তর্গত এক ধরনের ব্যয় বলে ধরা হয়।



মনিহারি হিসাবের বিভিন্ন নামকরণঃ

মনিহারি কি, সাপ্লাইজ কি, ষ্টেশনারী কি, মনিহারি হিসাবের জাবেদা, ছাপা ও মনিহারি, মনিহারি হিসাবের বৈশিষ্ট্য
মনিহারি দ্রব্য


মনিহারি কে ইংরেজিতে Fancy Goods (সৌখিন দ্রব্য) বলা হয়ে থাকে। অনেকে মনিহারি কে সাপ্লাইজ (Supplies) বলে অভিহিত করে, কেউবা মনিহারি কে ষ্টেশনারী বলে অভিহিত করে। হিসাববিজ্ঞানে মনিহারির সাথে অনেক সময় ফটোকপি বা ছাপা হিসাব যুক্ত করে একে ছাপা ও মনিহারি নামে এক সাথে হিসাব করে থাকে। সুতারং ছাপা ও মনিহারি, সাপ্লাইজ, ষ্টেশনারী ও মনিহারি একি জিনিস। এবং এগুলো মনিহারি হিসাবে হিসাব ভুক্ত হয়। 



মনিহারি হিসাবের বৈশিষ্ট্যঃ

  • ১. মনিহারি হিসাব বা সাপ্লাইজ এক ধরনের ব্যয় হিসাব।
  • ২. মনিহারি হিসাবের খতিয়ান উদৃত্ত ডেবিট হয়।
  • ৩. রেওয়ামিলের ডেবিট পাশে মনিহারি হিসাব লিপিবদ্ধ হয়।
  • ৪. লাভ-ক্ষতি হিসাব বা লাভ-লোকসান হিসাব বা আয় বিবরণীতে মনিহারি হিসাব পরিচালন ব্যয় হিসাবে হিসাব ভুক্ত হয়।
  • ৫. মনিহারি বেশির ভাগ ক্ষেত্রে নগদে ক্রয় করা হয়, তবে বাকিতে ক্রয় করলে তা উল্লেখ থাকে।
  • ৬. বাকিতে মনিহারি ক্রয় করা হলে পাওনাদার হিসাব না লিখে বকেয়া মনিহারি হিসাব লেখা হয়।
  • ৭. বকেয়া মনিহারি হিসাব আয় বিবরণীতে পরিচালন আয়ের ঘরে মনিহারির সাথে যোগ করে দেখাতে হয় এবং উদ্বর্তপত্রে বা আর্থিক বিবরণীতে দায়ের পাশে চলতি দায়ের ঘরে অন্তর্ভুক্তি হয়।
  • ৮. রেওয়ামিলে মনিহারি হিসাব না থাকলে এবং সমন্বয়ে মনিহারি হিসাব থাকলে, মনিহারি হিসাব রেওয়ামিলে থাকা সাধারণ খরচের সাথে হিসাব ভুক্ত হয়।



মনিহারি হিসাবের কিছু লেনদেন ও জাবেদাঃ

  • ১. মনিহারি ক্রয় করা হলো ৫০০/- টাকা।

মনিহারি হিসাব - ডেবিট -৫০০/- (ব্যয় বৃদ্ধি)

নগদান হিসাব - ক্রেডিট - ৫০০/- (সম্পদ হ্রাস)


  • ২. বাকিতে মনিহারি ক্রয় ৫০০/-

মনিহারি হিসাব - ডেবিট - ৫০০/- (ব্যয় বৃদ্ধি)

বকেয়া মনিহারি হিসাব - ক্রেডিট - ৫০০/- (দায় বৃদ্ধি)


  • ৩. মনিহারি হিসাবে ৫০০/- টাকা হিসাব ভুক্ত করতে হবে।

মনিহারি হিসাব - ডেবিট - ৫০০/- (ব্যয় বৃদ্ধি)

নগদান হিসাব - ক্রেডিট - ৫০০/- (সম্পদ হ্রাস)


  • ৪. মনিহারির ৫০০/- বকেয়া রয়েছে যা হিসাব ভুক্ত হয় নি।

মনিহারি হিসাব - ডেবিট - ৫০০/- (ব্যয় বৃদ্ধি)

বকেয়া মনিহারি হিসাব - ক্রেডিট - ৫০০/- (দায় বৃদ্ধি)


  • ৫. ষ্টেশনারী ক্রয় বা সাপ্লাইজ ক্রয় ৫০০/- টাকা।

মনিহারি বা ষ্টেশনারী বা সাপ্লাইজ হিসাব - ডেবিট - ৫০০/- (ব্যয় বৃদ্ধি)

নগদান হিসাব - ক্রেডিট - ৫০০/- (ব্যয় বৃদ্ধি)



মন্তব্যঃ

উপরোক্ত আলোচনা থেকে এটাই প্রতিয়মান হয় যে মনিহারি হিসাব বা সাপ্লাইজ হিসাব বা ষ্টেশনারী হিসাব বা ছাপা ও মনিহারি হিসাব একি জিনিস এবং এগুলো একি ভাবে লিপিবদ্ধ হয়। মনিহারি সম্পর্কে কোনো প্রকার প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করে জানালে খুশি হবো। ধন্যবাদ।