বুধবার

অনলাইনে আয় করার সহজ পদ্ধতি

ঘরে বসে অনলাইনে আয়ের উপায়


এখানে যা থাকছে---

  • অনলাইনে আয় করার সহজ পদ্ধতি
  • অনলাইনে আয়ের সহজ উপায়
  • ঘরে বসে অনলাইনে আয়
  • মোবাইলে আয় করার কৌশল
  • ছাত্র ছাত্রীদের অনলাইনে আয়

অনলাইনে আয় করার সহজ পদ্ধতি, অনলাইনে আয়ের সহজ উপায়, ঘরে বসে অনলাইনে আয়, মোবাইলে আয় করার কৌশল, ছাত্র ছাত্রীদের অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়ের সকল পদ্ধতি


আইসিটি এর কল্যানে আধুনিক সমাজ রূপান্তরিত হয়েছে গ্লোবাল ভিলেজে (Global Village)। নিজ দেশে থেকে বিদেশি কোনো অফিসে চাকুরী পাওয়া, ঘরে বসে অফিসের কাজ করা, অফিসের বাইরের এক্সপার্ট দের সহযোগীতায় অফিসিয়াল সমস্যার সমাধান বর্তমান যুগের অর্থনৈতিক চাকাকে করে তুলেছে অদম্য। সৃষ্টি হয়েছে আয়ের নতুন নতুন পথ। যে পথ নিজ দেশ ছাড়িয়ে পাড়ি দিয়েছে বিদেশে। বর্তমান যুগে শুধু পেশাজীবীরা নয় ছাত্র-ছাত্রীরাও তাদের ছাত্রজীবনে আয় করতে শিখে গেছে। অনলাইনে আয়ের মাধ্যমে শুধু নিজের পড়াশোনার খরচ নয় পারিবারিক খরচে সাহায্য করছে অনেকে। ছাত্র জীবনে লক্ষ লক্ষ টাকা আয়ের নজির এ যুগেরি আশীর্বাদ। শুধু কম্পিউটার নয়, হাতে একটি মোবাইল ফোন বা স্মার্ট ফোন থাকলেই ইন্টারনেট সংযোগে খুব সহজে আয় করা সম্ভব। আয়ের ইচ্ছা থাকলে অনলাইনে আয় কঠিন কিছু নয়। কৌশল, পথের সন্ধান আর পরিশ্রম করার মানষিকতা খুলে দিতে পারে আয়ের নানারকম পথ। সকলের কথা চিন্তা করে, সকলকে অনলাইনে আয়ের সুঘ্রাণ দিতে আমাদের আজকের আলোচনা, ঘরে বসে মোবাইল বা কম্পিউটার ব্যবহার করে অনলাইনে আয়ের সহজ পদ্ধতি, কৌশল ও উপায় নিয়ে। আর্টিকেলটি মনযোগ সহকারে পড়তে থাকুন, আশাকরি আজ আপনি শিখে যাবেন অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায়।



অনলাইনে আয়ের পদ্ধতি জানার আগে কিছু টিপসঃ

  • অনলাইন কি - মোবাইল, কম্পিউটারে নেট বা ইন্টারনেট অন করার পর ক্রোম (Chrome), ওপেরা (Opera), ফাইয়ার ফক্স (Fire Fox) সহ নানারকম ব্রাউজারের মাধ্যমে গুগোল (Google), ইয়াহু (Yahoo), বিং (Bing) সহ নানারকম সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে আমরা যে সকল সাইটে প্রবেশ করি বা ব্রাউজ করি এইসকল সাইটে প্রবেশ করে থাকা কে অনলাইনে থাকা বলে। অর্থাৎ মোবাইল বা কম্পিউটারে নেট বা ডেটা অন করলেই মোবাইল বা কম্পিউটার অনলাইনের পরিবেশে চলে যায় এবং এমন অবস্থায় থাকা কে অনলাইনে থাকা বলে।
  • অনলাইনে আয় কি- মোবাইল, কম্পিউটার, স্মার্ট ফোন বা নানারকম আইসিটি যন্ত্র ব্যবহার করে ঘরে বসে বা যে কোনো জায়গায় অবস্থান করে অনলাইনে থাকা নানারকম সাইট ও উপায়ের মাধ্যমে বিভিন্ন সাইট বা অফিসে কাজ করে আয় করা কে অনলাইনে আয় বলে।
  • অনলাইনে আয় করতে যা প্রয়োজন- একটি আইসিটি যন্ত্র বা ডিভাইস যেমন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, স্মার্টফোন, ট্যাব, ট্যাবলেট, নোটপ্যাড ইত্যাদির সাথে ইন্টারনেট সংযোগ ও যে কোনো ব্রাউজার যেমন, Opera, Fire Fox, Google browser, Chrome ইত্যাদি এপ (App) এর সাথে কিছু কৌশল জানা থাকলেই খুব সহজে অনলাইনে আয় করা সম্ভব।


PTC (পিটিসি) সাইটের মাধ্যমে অনলাইনে আয়ঃ

PTC এর পূর্ণরূপ Paid to Click অর্থাৎ ক্লিকের মাধ্যমে আয়। অনলাইনে যারা খুব নতুন তারা কোনো দক্ষতা ছাড়াই PTC সাইটের মাধ্যমে আয় করতে পারেন। এটি ছাত্রজীবনে আয়ের একটি সহজ পথ। পিটিসি সাইট থেকে আয় করার জন্যে প্রথম কজ অনলাইন থেকে বিশ্বস্ত PTC সাইটে রেজিস্ট্রেশন বা সাইনাপ (Sign Up) করা। এর পর Login করে এসকল সাইটে থাকা বিজ্ঞাপন বা ad এ ক্লিক (Click) করে বা দেখার মাধ্যমে আয় করা যায়। অনলাইনে পিটিসি সাইটে আয় করার জন্য একটি বিশ্বস্ত সাইট পেইডভার্টস (Paidverts)। Paidverts থেকে আয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন>>>। অথবা সরাসরি পেইডভার্টস এ সাইনাপের জন্য এখানে ক্লিক করে সাইনাপ করুন>>>



ক্যাপচা পুরোন করে অনলাইনে আয়ঃ

আমরা যারা অনলাইনে কিছুদিন আছি তারা নিশ্চয় খেয়াল করেছি, কিছু কিছু সাইট আছে যেখানে প্রবেশ করতে সিকিউরিটি চেক হিসেবে নানারকম ছবি, শব্দ, বর্ণ, সংখ্যা ক্লিক করে অথবা নির্দিষ্ট ঘরে পুরোন করে সেই সাইটে প্রবেশ করতে হয়। একে বলে ক্যাপচা বা Captcha। অনলাইনে কিছু সাইট আছে যেখানে ক্যাপচা পুরোন করে আয় করা যায়। ক্যাপচা পুরোন করে সহজে আয় করতে 2Captcha একটি বিশ্বস্ত সাইট। 2Captcha সাইটে রেজিস্ট্রেশন বা Sign Up করে সহজে আয়ের জন্য এখানে ক্লিক করুন>>>



পেইড সার্ভে, সার্চ ও রিভিউ এর মাধ্যমে অনলাইনে আয়ঃ

অনলাইনে আয়ের অন্যতম সহজ উপায় পেইড সার্ভে (Paid Survey), সার্চ ও রিভিউ। ঘরে বসে মোবাইলে আয় করার এটি এক অন্যতম উপায়। অনলাইনে থাকা এমন কিছু সাইট আছে যারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পন্য ও নানারকম বিষয় নিয়ে সার্ভে বা জরিপ করে থাকে। এসব প্রতিষ্ঠানের সার্ভেতে অংশ গ্রহণ করে খুব সহজে আয় করা সম্ভব। এছাড়া অনলাইনে নানারকম তথ্য সার্চ করে বা খুজে ও নানারকম তথ্য রিভিউ করেও আয় করা সম্ভব। সার্ভে, সার্চ ও রিভিউ এর মাধ্যমে আয়ের জন্যে প্রথম কাজ এসকল সাইটে সাইনাপ বা রেজিস্ট্রেশন করা। সার্ভে, সার্চ ও রিভিউ এর মাধ্যমে আয়ের একটি বিশ্বস্ত ভারতীয় সাইট Opinionnow, এই সাইটে Sign Up করতে এখানে ক্লিক করুন>>>



অনলাইন টিউটর হয়ে অনলাইনে আয়ঃ

গ্লোবালাইজেশন এর যুগে শিক্ষা ব্যবস্থা নিজ শহর ছাড়িয়ে পাড়ি জমিয়েছে দেশ বিদেশে। ফলে ভিডিও কনফারেন্সিং (Video Conferencing) এর মাধ্যমে ঘরে বসেই শিক্ষা দেওয়া সম্ভব বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে থাকা ছাত্র ছাত্রীদের। তাই নিজে যে বিষয়ে পারদর্শী বা দক্ষ, সেই বিষয়ে অনলাইনের মাধ্যমে ছাত্র ছাত্রীদের টিউশন বা কোচিং করিয়ে আয় করা সম্ভব। ঘরে বসে টিউশন করাতে ফেসবুক এর মতো সোশ্যাল নেটওয়ার্কে বিজ্ঞাপন দেওয়া যেতে পারে বা গুগোল সহ নানারকম প্রতিষ্টানের মাধ্যমে প্রচার করা যেতে পারে। তাই অনলাইন টিউটর হয়ে নিজের দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে খুব সহজেই অনলাই থেকে উপার্জন বা আয় করা যায়। বাংলাদেশ থেকে টিউশনি বিজ্ঞাপন দেওয়ার একটি সাইট BdTutors, এখানে রেজিস্ট্রেশন করে টিউশন পেতে এখানে ক্লিক করুন>>>



ফেসবুক, টুইটার বা সোশাল নেটওয়ার্ক থেকে অনলাইনে আয়ঃ

Social Networking System বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে অনলাইন থেকে আয় করা বর্তমানে খুবি জনপ্রিয় হয়ে দাড়িয়েছে।কয়েকটি জনপ্রিয় সোশাল নেট ওয়ার্কিং সিস্টেম যেমন, Facebook, Twitter, Instagram ইত্যাদি ব্যবহার করে বর্তমানে নানা পেশার লোক এমন কি ছাত্র ছাত্রীরাও অনলাইনে আয় করতে পারছে। বিনোদনের সাথে সাথে কিছু কৌশল আয়ত্ত করতে পারলেই এসব সাইট থেকে খুব সহজে আয় করা সম্ভব। ফেসবুক থেকে আয়ের নানারকম কৌশল ও পদ্ধতি জানতে এখানে ক্লিক করুন>>>



অনলাইনে ছবি বা ফটো বিক্রি করে আয়ঃ

অনলাইনের মুক্ত দুনিয়ায় ছবি (Image) বা ফটো (Picture) এর চাহিদা ব্যপক। অনলাইনে রয়েছে অসংখ্য ওয়েব সাইট, ভিডিও, অডিও সহ নানা রকম কনটেন্ট। এসব কন্টেন্ট প্রকাশ ও প্রদর্শনের জন্য প্রয়োজন নানারকম ইমেজ বা ছবির। নেট দুনিয়াকে কেন্দ্র করে তাই গড়ে উঠেছে ছবি ক্রয় বিক্রয় ব্যবস্থা। নিজের মোবাইল বা ক্যামেরায় তোলা যে কোনো ছবি এখানে বিক্রয় করে আয় করা সম্ভব। আশেপাশের নানারকম দৃশ্যের ছবি বিক্রয় করে তাই অনলাইনে আয় করা সম্ভব। শুধু ক্যামেরা বা মোবাইলে তোলা ছবিই নয়, নিজের আকা কোনো ছবি বা কম্পিউটার গ্রাফিক্স বা লোগো অনলাইনে বিক্রয় করে অনেক মোটা অংকের অর্থ আয় করা সম্ভব। আপনার ছবি Envato বা Shutterstock এর মতো সাইট গুলোতে বিক্রয় করে খুব সহজে আয় করতে পারেন। Shutterstock এ আপনার তোলা বা আকা ছবি বিক্রয় করতে এখানে ক্লিক করুন>>>



গুগোল Adsense থেকে আয়ঃ

এড সেন্স একটি বিজ্ঞাপন দাতা সংস্থা। এটি Google এর একটি শাখা ব্যবস্থা। এডসেন্স বিভিন্ন প্রতিষ্টান থেকে টাকার বিনিময়ে পন্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দেখাতে চুক্তি করে। চুক্তি করা টাকা থেকে কিছু অর্থ নানারকম সাইট মালিক, ব্লগ মালিক, এপ মালিক, ভিডিও বা কন্টেন্ট মালিকদের দিয়ে তাদের কন্টেন্টে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে থাকে। ফলে কন্টেন্ট মালিকগন এডসেন্স এর মাধ্যমে সহজেই আয় করতে পারে। ব্লগ, সাইট, ইউটিউব চ্যানেল, এপ তৈরি করে গুগোল প্লে তে সাবমিট করে এডসেন্স এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে আয় করা এখন খুবি জনপ্রিয় একটি প্রক্রিয়া। তাই Adsense এর মাধ্যমে অনলাইনে আয় করা সম্ভব। Adsense এ একাউন্ট খুলতে এখানে ক্লিক করুন>>>



ইউটিউব থেকে অনলাইনে আয়ঃ

আমরা আগেই জেনেছি যে মোবাইলে ডেটা অন করা অবস্থাকে অনলাইনে থাকা বলে। ডেটা বা নেট ছাড়া ইউটিউব চলে না। তাই ডেটা অন কেরে ইউটিউবে পেবেশ করা মানেই অনলাইনে থাকা। বর্তমানে ইউটিউবে আয়ের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে। ভিডিও আপলোড করে ইউটিউব (Youtube) থেকে আয় করা যায়। সাধারন্ত ইউটিউবে আয় করতে নিজের একটি ভিডিও চ্যানেল খুলতে হয়, এর পর চ্যানেলে ভিডিও আপলোড দেওয়ার পর গুগোল এড সেন্স এ ভিডিওর মাঝে বিজ্ঞাপন বা এড দেখানোর জন্য এড সেন্সে (Adsense) এ একাউন্ট খুলে আবেদন করতে হয়। এডসেন্স এপ্রুভ হলে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে আয় করা যায়। এভাবে ভিডিও আপলোড করে ইউটিউবের মাধ্যমে অনলাইনে আয় করা যায়। বর্তমানে ইউটিউব থেকে আয় খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। মোবাইল বা কম্পিউটারে Youtube App না থাকলে Google Play বা Apple Store বা Softonic থেকে Youtube এপ ডাউনলোড করে একাউন্ট খুলে সহজেই ভিডিও আপলোড করে এডসেন্সের মাধ্যমে আয় করা সম্ভব।



ব্লগ বা সাইট থেকে অনলাইনে আয়ঃ

ব্লগ বলতে এমন এক সাইট কে বোঝায় যেখানে নানারক তথ্য, ভিডিও, অডিও প্রকাশ করা হয়। অন্য দিকে সাইট বলতে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্টানের তথ্য ও পন্য পরিচিতির প্লাটফর্ম কে বোঝায়। ব্লগ এবং সাইট মূলত একি জিনিস। লেখা লেখি যারা পছন্দ করেন তারা তাদের লেখা লেখি প্রকাশের জন্যেও ব্লগ বা সাইট তৈরি করতে পারেন। ব্লগ বা সাইট তৈরির প্রধান উদ্যেশ্য থাকে প্রচার করা। ফলে এসকল ব্লগ বা সাইটে ভিজিটর তার প্রয়োজন মেটাতে ও তথ্য সরবরাহের জন্যে ভিজিট করতে আসে। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে গুগোল Adsense এর মাধ্যমে ব্লগ বা সাইটে বিজ্ঞাপন বা এড দেখিয়ে সহজেই আয় করা সম্ভব। এছাড়া নানারকম প্রতিষ্ঠানের পন্যের তালিকা, পরিচিতি ও সাইটের মাধ্যমে পন্য বিক্রয় করিয়েও ব্লগ বা সাইট থেকে আয় করা সম্ভব। একটি ব্লগ সাইট খুলতে ২ টি জিনিসের প্রয়োজন হয়, ডোমেইন নেম এবং হোস্টিং। ডোমেইন নেম এবং হোস্টিং সাধারণত অনলাইনে থাকা নানারকম ডোমেইন হোস্টিং প্রভাইডার দের নিকট থেকে কিনে নিতে হয়। বাংলাদেশ থেকে ডোমেইন হোস্টিং কেনার একটি বিশ্বাসযোগ্য প্রতিষ্ঠান Dianahost, আপনি যদি ডাইনাহোস্টের মাধ্যমে হোস্টিং কিনতে চান তবে সাথে নানারকম অফারো পেতে পারেন। হয়তো হোস্টিং কিনলে ডোমেইন ফ্রিতে পেয়ে যেতে পারেন। Dianahost থেকে ডোমেইন হোস্টিং কিনতে এখানে ক্লিক করুন>>> এছাড়া ইন্টারন্যাশনাল ভাবে অনেক প্রতিষ্টান রয়েছে যেমন Godaddy.com, namecheap.com ইত্যাদি, এসকল প্রতিষ্টান থেকেও ডোমেইন হোস্টিং ক্রয় করা যেতে পারে। তবে বাংলাদেশিদের জন্য Dianahost থেকে কেনায় উত্তম। এটি বিশ্বস্ত প্রভাইডার। কোনো সমস্যা হলে হেল্প লাইন থেকে দ্রুত সমাধান করে থাকে। এছাড়া যদি কেও টাকা খরচ না করে ফ্রি তে ডোমেইন হোস্টিং নিয়ে ব্লগ বা সাইট করতে চান তবে blogger.com থেকে ফ্রিতে শুরু করতে পারেন। অর্থাৎ ব্লগ বা সাইট থেকে অনলাইন থেকে খুব সহজেই টাকা বা ডলার আয় করা সম্ভব।



অনলাইনে পন্য বিক্রয়ের মাধ্যমে আয়ঃ

অনলাইনে পন্য বিক্রয়ে বর্তমান বিশ্ব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। নিজের বা অন্যের দোকানের কোনো পন্য, গাড়ি, বাড়ি নানারকম সাইট, ব্লগ, ফেসবুক, ইনেস্টাগ্রাম সহ নানারকম সাইটে প্রকাশ ও শেয়ারের মাধ্যমে খুব সহজেই বিক্রয় করা যায়। এভাবে পন্য বিক্রয়ের মাধ্যমে অনলাইন থেকে আয় করা সম্ভব।



লিংক শর্ট করে অনলাইনে আয়ঃ

অনলাইনে লিংক শর্ট করে সহজেই আয় করা সম্ভব। যে কোনো লিংক শর্ট করে আয়ের উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন>>>



মাইক্রোওয়ার্কার্স সাইট থেকে অনলাইনে আয়ঃ

ছোটখাটো কাজ বা Microwork এর মাধ্যমে Micro worker হয়ে Microworkers সাইট থেকে অনলাইনে সহজেই ইনকাম বা আয় করা সম্ভব। সাধারণত কাস্টমারস দের ই-মেইল খুলে দেওয়া, ডাটা এন্ট্রি করা, ইউটিউব চ্যানেল খুলে দেওয়া সহ নানারকম ছোট খাট কাজ করে খুব সহজেই Microworkers সাইট থেকে আয় করা সম্ভব। অনলাইনে আয়ের জন্য Microworkers সাইটে Sign Up বা রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন>>>



মোবাইল এপ ও ছবি দিয়ে অনলাইনে আয়ঃ

অনলাইনে আয় করার সহজ পদ্ধতি, অনলাইনে আয়ের সহজ উপায়, ঘরে বসে অনলাইনে আয়, মোবাইলে আয় করার কৌশল, মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইনে আয়
মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইনে আয়


মোবাইল বা স্মার্টফোন নেই বর্তমান বিশ্বে এমন লোক পাওয়া খুবি দুর্লভ। মোবাইল বা স্মার্টফোন ব্যবহার করে খুব সজেই অনলাইন থেকে আয় করা সম্ভব। Agora,  EyeEm এর মতো মোবাইল এপ (App) এ রয়েছে মোবাইলে তোলা ছবি বিক্রয়ের দারুণ সুযোগ। এছাড়া মোবাইলের জন্য বিভিন্ন এপ ও গেম রয়েছে যা থেকে খুব সহজেই আয় করা যায়। এছাড়া খোজ করলে অনলাইনে টাকা আয় করার অ্যাপ পাওয়া যায়, এসকল এপ এর সাহায্যে ছোট খাটো কাজ করে মোবাইলের মাধ্যমেই আয় করা সম্ভব।



এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে অনলাইনে আয়ঃ

এফিলিয়েট বা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate Marketing) এর মাধ্যমে অনলাইনে আয় বর্তমানে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। অনলাইনে ইনকাম করার উপায় হিসেবে এটি দিন দিন আয়ের নতুন নতুন দিগন্ত উন্মোচন করছে। Affiliate Marketing হলো কোনো প্রতিষ্টানের পন্য বা সেবা কমিশনের বিনিময়ে বিক্রি করে দেওয়া। অর্থাৎ কোনো প্রতিষ্ঠানের পন্য বা সেবা বিক্রি করিয়ে দেওয়ায় সেই প্রতিষ্টান যে কমিশন প্রদান করে সেটার মাধ্যমেই Affiliate Marketing থেকে আয় হয়ে থাকে। Affiliate Marketing সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে আমরা দ্রুত একটি আর্টিকেল লেখবো। আশাকরি আমাদের সাথেই থাকবেন। বর্তমানে Alibaba, Ammazon এর মতো ন্যাশনাল ও ইন্টারন্যাশনাল অনেক প্রতিষ্টান আছে যারা এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুযোগ করে দিচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠান প্রতিটি পন্যের জন্য একটি রেফারাল লিংক দেয়, এসকল লিংক ফেসবুক, টুইটার, ব্লগ, সাইটে বা নানা জায়গায় শেয়ার বা প্রকাশ করলে কেউ যখন সেই পন্য ক্রয়ের জন্য সেই লিংকে  ক্লিক করে পন্য ক্রয় করে তখন কমিশন হিসেবে আয় হয়ে থাকে। Ammazon এ একাউন্ট খুলে Affiliate Marketing করতে এখানে ক্লিক করুন>>>



আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে অনলাইনে আয়ঃ

আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে আয় বর্তমান বিশ্বের অনলাইন আয়ের এক অন্যতম মাধ্যম হিসেবে প্রাধান্য পেয়েছে। আউটসোর্সিং বলতে বাইরের প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তিকে দিয়ে কাজ করিয়ে নেওয়া কে বোঝায়। আর এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিশ্বের এক প্রান্তের প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির কাজ অন্য প্রান্তের ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সম্পন্ন করে সহজেই আয় করতে পারছে। আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে কাজ পাইয়ে দেওয়ার জন্য বর্তমানে অনলাইনে নানারকম প্লাটফর্ম রয়েছে। Fiverr, Freelancer, Upwork এসকল ফ্রিলান্সার প্লাটফর্মে একাউন্ট খুলে খুব সহজে দেশ বিদেশের নানারকম ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাজের সুযোগ পাওয়া যায়। Freelancer এ একাউন্ট খুলতে এখানে ক্লিক করুন>>> । আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে একজন ফ্রিলান্সার অসংখ্য ধরনের কাজ পেয়ে থাকে, নিম্নে এসকল কাজের কয়েক প্রকার সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-

  • ১. ডেটা এন্ট্রি করে আয়- আউটসোর্সিং প্লাটফর্ম গুলোতে অনেক কাজের মধ্যে ডেটা এন্ট্রি করে আয় অনলাইন আয়ের সহজ এক পথ। এ ধরনের কাজ বর্তমানে খুব কম পাওয়া গেলেও যারা টাইপিং এ দক্ষ তারা খুব সহজে ডেটা এন্ট্রি করে অনলাইন থেকে আয় করতে পারে।
  • ২. কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে আয়- আউটসোর্সিং প্লাটফর্ম গুলোতে অনেক প্রতিষ্টান তাদের প্রতিষ্ঠানের ও সাইটের জন্য কন্টেন্ট তৈরি করার কাজ দিয়ে থাকে। যারা লেখালেখিতে দক্ষ তারা খুব সহজে এসকল কাজ করার মাধ্যমে অর্থাৎ কন্টেন্ট তৈরি বা আরটিকেল রাইটিং এর মাধ্যমে খুব সহজে আয় করতে পারে।
  • ৩. গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমে আয়- অনলাইনে নানারকম প্রতিষ্ঠানের নানারকম চার্ট তৈরি, গ্রাফিক্স ডিজাইন, লোগো তৈরি সহ নানারকম নকশার কাজ করে মোটা অংকের আয় করা সম্ভব।
  • ৪. ওয়েব ডিজাইন করে আয়- আউটসোর্সিং প্লাটফর্ম গুলোতে যে সকল কাজ পাওয়া যায় তার মধ্যে ওয়েব ডিজাইন করা খুবি জনপ্রিয়। নানারকম ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের ওয়েব সাইট ডিজাইন করে খুব সহজে অনলাইনে আয় করা সম্ভব।
  • ৫. অনুবাদ করে আয়- বিভিন্ন ভাষায় দক্ষতা থাকলে অনুবাদ করে অনলাইনে আয় করা যায়। আর্বি, ফ্রেঞ্জ, স্পানিশ ভাষায় দক্ষতা থাকলে এসকল ভাষাতে লেখা আর্টিকেল ইংরেজীতে অনুবাদ করে অনলাইনে আয় করা যায়। আউটসোর্সিং প্লাটফর্ম গুলোতে অনুবাদের কাজ করে বর্তমানে অনেকেই প্রচুর আয় করছে।
  • ৬. ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হয়ে আয়- আউটসোর্সিং প্লাটফর্মে অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যারা তাদের প্রতিষ্ঠানের ফোন কল রিসিভ, ই-মেইল সেন্ড, গ্রাহকদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করার জন্য লোক চায়। এসকল কাজ করাকে ভার্চুয়াল কাজ বলে। আর প্রতিষ্ঠানের সহকারি হিসেবে এসব কাজ করা হয় বলে এসব কাজ করে আয় করা কে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হয়ে আয় করা বলে। অনলাইনে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ করে বর্তমানে অনেকেই প্রচুর আয় করছে। এটি অনলাইন ইনকাম বা আয়ের এক সম্ভাবনাময় পথ।


ছাত্র-ছাত্রী দের জন্য অনলাইনে আয়ের টিপসঃ

বিশ্বায়নের যুগে ছাত্র অবস্থায় বিশ্বের উন্নত দেশ গুলোতে ছাত্র ছাত্রীরা অবলাইনে আয় করে চলেছে। নিজের হাত খরচ মেটানো তো সামান্য ব্যপার, ছাত্রছাত্রীরা আয় করে পরিবারের আয়ের অন্যতম সহায়ক হিসেবে কাজ করছে। অনেকে তো অনলাইনে আয় করে বিশ্বের ধনীদের কাতারে স্থান করে নিয়েছে। তাই দেরি না করে আজি চেষ্টা করতে শুরু করুন। ধৈর্য্য ধরে অপেক্ষা করুন। আশাকরি ছাত্রজীবনে আপনিও পারবেন অনলাইনে আয়ের সুঘ্রাণ পেতে।



অনলাইনে আয় করা টাকা উত্তোলনের উপায়ঃ

অনলাইনে আয় তো করলেন কিন্তু সে টাকাতো হাতে পাওয়া চাই। বর্তমানে অনলাইনে আয় করা অর্থ হাতে পাওয়ার নানারকম উপায় রয়েছে। নিজের ব্যাংক একাউন্টে পৌছানো এখন কষ্টের কিছু নয়। বাংলাদেশ বা ইন্ডিয়া বা যে কোনো দেশ থেকে যে কেও খুব সহজেই অনলাইনে আয় করা টাকা উত্তলোন করতে পারবে। তাই আয় করা টাকা উত্তলোনের চিন্তা না করে আগে আয় করা শুরু করুন। আয় করা অর্থ আপনি নিশ্চিত উত্তলোন করতে পারবেন। উত্তলোনের উপায় গুলো নিয়ে আমরা সাইটে অন্য কোনো লেখাতে আলোচনা করবো। আপনি ইচ্ছা করলে গুগোলে সার্চ করেও এ সম্পর্কে জানতে পারবেন। আপনার যে কোনো সমস্যা হলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ।

নিচের বক্সে কমেন্ট করুন। আপনার প্রতিটি কমেন্ট আমাদের নিকট খুবি গুরুত্বপূর্ণ।

আপনার কমেন্টের উত্তর আমরা যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব দিতে চেষ্টা করবো। আমাদের সাথেই থাকুন।
1timeschool.com
EmoticonEmoticon